শিরোনাম :
উপজেলা চেয়ারম্যান রোমা আক্তারের প্রথম অফিস  আমারে বদলী করতে মন্ত্রী লাগব,এমপি দিয়ে হবে না, বললেন মেডিকেল অফিসার মোহায়মিনুল। নাসিরনগরে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ দেবর ও শ্বশুর আটক । কুন্ডা ইউনিয়নের ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান সহ ১২ সদস্যের অনাস্থা নাসিরনগর সদর পশ্চিমপাড়া প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ উদ্ধার। প্রদীপ কুমার রায় উপজেলা পরিষদ নিবার্চন থেকে সরে দাঁড়ালেন। ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় দায়ে প্রাণ গেল এক যুবকের । নাসিরনগরে এন আর ভবনে কৃষকলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল । নাসিরনগরে সেপটি ট্যাংকি থেকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার।  ধান কাটা নিয়ে সংঘর্ষে সরাইল একজন নিহত
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৭:০২ পূর্বাহ্ন

প্রদীপ কুমার রায় উপজেলা পরিষদ নিবার্চন থেকে সরে দাঁড়ালেন।

প্রতিনিধির নাম / ৮৬ বার
আপডেট : শুক্রবার, ৩ মে, ২০২৪

মিহির দেব ব্রাহ্মণবাড়িয়া ঃনাসিরনগর উপজেলা পরিষদ নিবার্চন থেকে সরে দাঁড়ালেন প্রদীপ রায়, আগামী ৮ মে নাসিরনগর উপজেলা পরিষদ নিবার্চনে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার রায়। তার প্রতীক ছিল দোয়াত-কলম।

আজ শুক্রবার (৩ মে) দুপুরে উপজেলা সদরে তার বাসায় সাংবাদিকদের জানান,অসুস্থতার কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য তিনি নির্বাচন করবেন না এবং নির্বাচন থেকে সরে গেছেন। তিনি বলেন আমার শারিরীক অসুস্থতার কারণে উন্নয়ত চিকিৎসা নেয়া প্রয়োজন।

সে জন্য ভোটারদের কাছে বিনীতভাবে দু:খ প্রকাশ করে বলেন ডাক্তারসহ পরিবার ও এলাকাবাসীর পরামর্শক্রমে আমি চলমান উপজেলা পরিষদ নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালাম। তবে আমি আমার আর্দশিক রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়াবো না।

আপনারা আমার ডাকে সাড়া দিয়ে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করে ছিলেন তা এ জীবনে ভোলার মত না। আমার জন্য দোয়া করবেন দ্রুত চিকিৎসা নিয়ে আপনার কাছে সুস্থ হয়ে ফিরতে পারি। হায়াতে বেচেঁ থাকলে আবার দেখা হবে। আমার সকল ভোটার ও স্বজদের কাছ থেকে দোয়া চেয়ে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে বিদায় নিচ্ছি। উল্লেখ্য তিনি দোয়াত-কলম প্রতীক নিয়ে প্রচাররণার শুরু থেকে মাইকিং,পোস্টারিং,গণসংযোগ ও বিভিন্ন উঠান বৈঠক করছিলেন। গত ২৭ এপ্রিল শনিবার বিকালে উপজেলার চাপরতলা ইউনিয়নের বড়ইউড়ি গ্রামে উঠান বৈঠকে বক্তব্য দেয়ার সময় বুকে প্রচন্ড ব্যথা অনুভব হলে প্রথমে নাসিরনগর হাসপতালে ও পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে ৫ দিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের অধীনে চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার নিজ এলাকায় আসি এবং নিজের অসুস্থতা ও উন্নত চিকিৎসার জন্য এলাকাবাসীসহ পারিবারিক সিদ্ধান্তে নিবার্চন থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা আজ দুপুরে সাংবাদিকদের জানান তিনি। তবে তিনি সরাসরি কোন প্রার্থীকে সমর্থন দেননি।


এ জাতীয় আরো সংবাদ