শিরোনাম :
বাঁশের সাঁকো পারাপারের গুনতে হচ্ছে মাথাপিছু পাঁচ টাকা । ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক ইউনিয়ন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রীকে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন । তিন ডাকাত ও এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে। আব্দুল্লাহশাহ মাজারের নতুন কমিটি গঠন,সভাপতি নিয়ামত সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল। মুসলিম মহিলা হিন্দু সেজে উৎসব চলাকালীন সময় স্বর্ণের চেইন চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনজীবী সমিতি সভাপতি কামরুজ্জামান সাধারণ সম্পাদক, মফিজুর রহমান ধর্ষণের মামলা আসামী সাকিব গ্রেফতার ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনের নৌকার প্রার্থী ফরহাদ হোসেন সংগ্রামের বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ ইসির নাসিরনগরে নৌকা মার্কা ভালো মাঝি ভালো না, নৌকার ভরাডুবি সাংবাদিক সম্মেলন করে নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষনা করলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী একরামুজ্জামান সুখন ।
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

সরাইল চুন্টা ইউনিয়নের রসুল পুর পূর্বপাড়া রাস্তা কেটে রাস্তা নির্মাণের অনিয়মের অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম / ১০৭৯ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন, ২০২৩

মিহির দেব ,ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল উপজেলা’র চুন্টা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের রসুলপুর পূর্বপাড়ায় একটি রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সরাইল অরুয়াইল সড়কের চুন্টা ইউনিয়নের রসুলপুর পূর্বপাড়ায় একটি রাস্তা নির্মাণের কাজ চলছে। ভেকুর সাহায্যে রাস্তা লাগুয়া খাল থেকে কর্দমাক্ত মাটি কেটে ফেলা হচ্ছে। আর যেভাবে কর্দমাক্ত মাটি কেটে ফেলা হচ্ছে তাতে মনে হয়েছে উপকারের চেয়ে অপকারই হবে বেশি। কারণ মূল রাস্তার অংশ কেটে পুনরায় মেরামত করা হচ্ছে কর্দমাক্ত মাটি দিয়ে।
স্থানীয়রা অনেকেই বলছিলেন, যেভাবে কর্দমাক্ত মাটি ফেলা হচ্ছে এই রাস্তা টিকবে না। তারা অনেকেই বলেন এখন যেভাবে মাটি কেটে ফেলা হচ্ছে হাটাচলা করতেই সমস্যা হবে। তারা এই কাজ দেখে হতাশ।

মো: লিটন মিয়া নামে এক জন বলেন, দেখা যাবে যেভাবে কর্দমাক্ত মাটি কেটে ফেলা হইতেছে কোন গর্ভবতী মহিলা নিয়ে বের হওয়াই মুশকিল হবে।
আব্দুল হক(৫০) নামে এক জন বলেন, নিম্নমানের কাজ দেখে আমরা সকলে মিলে ভেকু দিয়ে মাটি কাটার কাজ বন্ধ রাখতে বলছি।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে চুন্টা ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির বলেন, রাস্তার কাজের সময় কিছু অংশ ভুল করে কেটে ফেলা হয়েছে। আর এলাকার জনগণ না চাইলে আমি ভেকু সরিয়ে নিয়ে আসতে বলবো। আমি বরাদ্দের জন্য এমপি উকিল আব্দুস সাত্তার ভূইয়া ও মহিলা এমপির কাছেও বরাদ্দ চেয়েছি। এখন ইউনিয়ন পরিষদের বরাদ্দ থেকে কাজ শুরু করে দিয়েছিলাম।


এ জাতীয় আরো সংবাদ